গোপন ভিডিও ধারণ করে ২ বছর তরুণীকে ধর্ষণ, প্রেমিক গ্রেফতার

প্রকাশিত: 3:39 PM, January 17, 2022
ফাইল ছবি

ধলাই ডেস্ক: পাবনার ফরিদপুরে বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ও গোপনে ভিডিও ধারণের পর তা ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টানা ২ বছর ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বুলবুল আহমেদ বিপুল নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত বুলবুল আহমেদ বিপুল ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডুতোষ ইউনিয়নের গজারমারা গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। রোববার বিকেলে ঐ গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ভুক্তভোগী তরুণী জানান, চার বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে বিপুলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর তাদের সম্পর্ক প্রেমে রূপ নেয়। এর কিছুদিন পর বিপুলের সঙ্গে তিনি দেখা করেন। ঐ সময় তাকে বোনের বাড়িতে নিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন বিপুল এবং ঘটনাটি কৌশলে মোবাইলে ধারণ করেন। পরে সেই ভিডিও দেখিয়ে তাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে ঐ তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলে ভ্রূণ নষ্ট করতে বাধ্য করেন বিপুল। এ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে তার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেও মুক্তি পাননি ঐ তরুণী। এরপর বিপুলকে বিয়ের জন্য চাপ দেন তিনি।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ২০ ডিসেম্বর সকালে ফরিদপুর উপজেলার খলিশাদহ গ্রামে বোনের বাড়িতে নিয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে টানা চারদিন মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন বিপুল। পরে মেয়েটিকে ঐ বাড়িতে রেখে চলে যান তিনি। ২৮ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়নের গজারমারা গ্রামে প্রেমিক বিপুলের বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবিতে নিয়ে অনশন শুরু করে মেয়েটি। ঐ বাড়িতে অবস্থানকালে ১ জানুয়ারি দুপুরে তিনি ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর থানায় হস্তান্তর করে। ঐ রাতে মেয়েটি ফরিদপুর থানায় ধর্ষণ মামলা করে।

ফরিদপুর থানার ওসি মাসুদ রানা বলেন, অভিযোগ ও মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রোববার বিকেলে অভিযুক্ত বিপুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।