বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ, তিনদিনের রিমান্ডে ৬ আসামি

প্রকাশিত: 8:42 PM, August 9, 2022
সংগৃহীত

ধলাই ডেস্ক: টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ১০ ডাকাতের মধ্যে ৬ জনের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন বিচারক। বাকি ৪ ডাকাতের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি চলমান রয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে টাঙ্গাইল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা হাসানাত আসামিদের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন প্রত্যেককে ৭ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

টাঙ্গাইলের আদালত পরিদর্শক তানবীর আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিমান্ড মঞ্জুরের আসামিরা হলেন- সোহাগ মন্ডল, খন্দকার হাসমত আলী ওরফে দীপু, বাবু হোসেন ওরফে জুলহাস, মো. জীবন, আব্দুল মান্নান ও নাঈম সরকার মুন্না।

এছাড়াও বাকী চারজন আসামি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিচ্ছেন। জবানবন্দী দেয়া আসামিরা হলেন- রতন হোসেন,  মো. আলাউদ্দিন, রাসেল তালুকদার, আসলাম তালুকদার ওরফে রায়হান।

মধুপুরে ঈগল পরিবহন নামের একটি নৈশকোচে যাত্রীবেশে ডাকাতি ও এক নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় ডাকাতির মূল পরিকল্পনাকারীসহ ডাকাত চক্রের ১০ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গত রোববার রাতে ঢাকা, গাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ এলাকায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল শহরের নতুন বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে মূলহোতা রাজা মিয়াকে গ্রেফতার করে টাঙ্গাইল জেলা ডিবি পুলিশ। পরের দিন শুক্রবার ভোরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর ও সোহাগপল্লী থেকে মো. আউয়াল ও নুরনবী নামে আরো দুইজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। বর্তমানে গ্রেফতার ওই তিনজন কারাগারে রয়েছেন।