সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষায় সরকার ব্যর্থ: ফখরুল

প্রকাশিত: 8:29 PM, June 4, 2022
সংগৃহীত

ধলাই ডেস্ক: দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষায় সরকার ব্যর্থ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার (৪ জুন) বিকেলে ঢাকেশ্বরী মন্দির প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্ট আয়োজিত এক প্রার্থনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে ধর্মীয় স্বাধীনতার ওপরে যে রিপোর্ট হয়, সেই রিপোর্টে আজকে খুব পরিষ্কার করেছে তারা, উল্লেখ করেছে, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষা করতে এই সরকার ব্যর্থ হয়েছে। এটাই বাস্তবতা, এটাই সত্য।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বলে কিছু আছে তা আমরা (বিএনপি) বিশ্বাস করি না। আমরা মনে করি, বাংলাদেশের সবাই একই সম্প্রদায়ের মানুষ। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সেটাতেই বিশ্বাস করেন।

ফখরুল বলেন, বর্তমানে দেশে যে গণতন্ত্রহীনতা চলছে, সেই গণতন্ত্রহীনকে দূর করে আমরা যেন মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে পারি, মানুষের অধিকারগুলো রক্ষা করতে পারি, দেশে যেন শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারি, দেশের সাম্প্রদায়িকতার সমস্ত বীজকে উপড়ে ফেলতে পারি, সত্যিকার অর্থেই ১৯৭১ সালে আমরা যে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলাম, সেজন্য ১৭ কোটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সেজন্য আমাদের সংগ্রাম করতে হবে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াই করতে হবে।

এসময় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অন্তরীণ করে রাখা, মিথ্যা মামলায় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিদেশে নির্বাসিত করে রাখা, দেশে ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও গুম-খুনে দেড় সহস্রাধিক নেতাকর্মীকে নিহতের করার বিষয়টি তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানে ৪১তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্ট এই প্রার্থনা সভার আয়োজন করে। এসময় জিয়াউর রহমানের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

এছাড়া সদ্য পরোলোকগত হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্টের আহ্বায়ক গৌতম চক্রবর্তীর স্মৃতির প্রতিও শ্রদ্ধা জানানো হয় এই সভায়।

বিএনপির সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অমলেস দাস অপুর সভাপতিত্বে ও যুবদল নেতা তরুন দে’র সঞ্চালনায় সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী।

এসময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য বিজন কুমার সরকার, কেন্দ্রীয় নেতা জয়ন্ত কুমার কুন্ড, সুশীল বড়ুয়া, অর্পনা রায়, রমেশ দত্ত, দেবাশীষ মধু, মিল্টন বৌদ্ধ, জয়দেব, সাবেক কমিশনার মীর আশরাফ আলী আজম, মোশাররফ হোসেন খোকন এবং বিএনপি চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার ও প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান উপস্থিত ছিলেন।