সুনামগঞ্জ শহরের বিভিন্ন সড়ক তলিয়ে গেছে বন্যার পানিতে

প্রকাশিত: 5:50 PM, May 17, 2022
সংগৃহীত

ধলাই ডেস্ক: কয়েকদিনের ভারী বর্ষণ ও উজানের ঢলে সুনামগঞ্জের প্রধান নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এক রাতের বর্ষণে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ৩৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে জেলা সদরের বিভিন্ন সড়ক। বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে জেলার নিম্নাঞ্চলেও।

বন্যার পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাতে জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভারতের মেঘালয় ও আসাম প্রদেশে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে দেশের উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে পারে।

এদিকে, সুরমা নদীর পনি বিপদসীমার উপরে চলে যাওয়ায় সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া, উকিলপাড়া, ষোলঘর ও নবীনগর এলাকা বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। ঐসব এলাকায় সড়কের উপর দিয়ে পানি শহরের প্রবেশ করছে। এছাড়া জেলার  ছাতক, দোয়ারাবাজার, তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

এসব উপজেলার বিভিন্ন সড়কের অংশবিশেষ পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় জেলা সদরের সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো মানুষ। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে চারটি উপজেলার অনেক হাওরে আবাদ করা ইরি জাতের ধান। এতে বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন কৃষকরা।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জহুরুল ইসলাম জানান, আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২৪ ঘণ্টা পানি বাড়বে। এতে জেলার নিম্নাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।