পৌষ সংক্রান্তি: কমলগঞ্জে সখের মাছ নেই সাধারণ ক্রেতার নাগালে

প্রকাশিত: 6:18 PM, January 13, 2021
ছবি ধলাইর ডাক

স্টাফ রিপোর্টার: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সনাতনী হিন্দু ধর্মালম্বীদের পৌষ সংক্রান্তি উৎসব উপলক্ষে উপজেলার মুন্সিবাজার, ভানুগাছ বাজার, আদমপুর বাজার ও শমসেরনগরে বসেছে বিরাট মাছের মেলা। বুধবার (১৩ জানুয়ারী) সকাল ১০টা থেকে বিভিন্ন জাতের বড় আকারের মাছ সাজিয়ে বসেন মাছ বিক্রেতারা। পৌষ পার্বণ উপলক্ষে বড় আকর্ষণ তাকে বাজার থেকে পছন্দমত বড় আকারের মাছ কিনে খাবার তৈরী করা।
বুধবার দুপুরে ভানুগাছ বাজারে মাছের মেলা ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি মাছের দোকানে ছোট ও বড় আকারের মাছ সাজিয়ে রাখা হয়েছে। বাজারে বাঘ মাছ, চিতল, রুই, কাতলা, বোয়াল, মৃগেল, পাঙ্গাস, আইড়, ব্রিগেট, ঘাস কার্যসহ রয়েছে নানা জাতের সামুদ্রিক মাছ। কিছু কিছু দুর্লভ মাছ যেগুলো সহজে হাট বাজারে পাওয়া যায় না এমন মাছও সাজিয়ে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে। বিক্রেতারাও বেশ চড়া দাম হাঁকাচ্ছেন। সরেজমিনে দেখা যায় ভানুগাছ বাজারে মাছের মেলায় ২০ কেজি ওজনের এটি বাঘ মাছের বিক্রেতা দাম হাঁকাচ্ছেন ৫০ হাজার টাকা। আরেকটি ১৮ কেজি ওজনের নানীন মাছের দাম বলা হয়েছে ৩৫ হাজার টাকা। ২০ কেজি ওজনের একটি বোয়াল মাছের দাম বলা হয়েছে ৩০ হাজার টাকা। ক্রেতা নিখিল পাল, রাকেশ গোস্বামী, অনিমেষ রায়, কামাল পারভেজ, সোহেল মিয়া জানান এ উৎসবে বাজারে নানা জাতের বড় আকারের মাছ উঠে। বর্তমানে বাজারে মাছের দাম বেশ চড়া। মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য বাজারে মাছক্রয় করা বেশ কষ্টসাধ্য। তারপরও উৎসব উদযাপনে যে যার সাধ্যমত মাছ কিনছেন। দাম বেশী হলেও পরে দরকষাকষি করে কিনে নিচ্ছেন।
মাছ বিক্রেতা মো: আব্দুর রউফ বলেন, দাম বড় কথা নয়। মূলত ক্রেতাদের আকর্ষিত করে এমন বড় আকারের মাছ সরবরাহ করা হয় মাছ মেলায়। যদিও চড়া দামের বলা হলেও ক্রেতারা দরাদরি করে পড়ে কিনে নিচ্ছে। আমি প্রায় ছয় লক্ষ টাকার মাছ বিক্রির জন্য এনেছি। আশা করছি ভাল দামে মাছ বিক্রি করতে পারবো।
মাছের আড়ৎদার আব্দুল জলিল বলেন, আগের চেয়ে এখন দেশীয় মাছের সরবরাহ অনেক কমে গেছে। সাধারণত বাজারে এত বড় আকারের মাছ উঠে না। পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে চাহিদা অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের হাওর, বাওর, বিল ও বড় নদী থেকে ধরে আনা বড় আকারের মাছ এ বিশেষ দিনের জন্য সরবরাহ করতে হয়। তাই প্রতি বছরের ন্যায় এবারও তারা বাজারের নানা জাতের বড় আকারের মাছ সরবরাহ করেছেন। মাছের মেলা বুধবার গভীর রাত এমনকি বৃহস্পতিবার সকালর পর্যন্ত এ বিক্রয় চলবে বলে আড়ৎদার জানান।