প্রতিশোধ নিতে ছাগলের পেটে ছুরি বসালেন শিক্ষক

প্রকাশিত: 5:05 PM, December 2, 2020
সংগৃহীত

ধলাই ডেস্ক: বরগুনার বামনায় ছাগলের পেটে ছুরি বসিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত মো. জাহাঙ্গীর আলম বামনার সারওয়ারজান পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

২৯ নভেম্বর উপজেলার পশ্চিম সফিপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে ছাগলটির পাকস্থলী কেটে গেছে।

এ ঘটনার অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার তদন্ত শুরু করেছে বামনা থানা পুলিশ। ছাগলটির মালিক বামনা উপজেলার পশ্চিম সফিপুর গ্রামের মো. সৈকত হাওলাদার বলেন, শত্রুতার জেরে আমার ছাগলটি মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে পাঁজরে ছুরি বসিয়ে দিয়েছেন শিক্ষক জাহাঙ্গীর। এর আগেও আমার পরিবারকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়েছেন তিনি।

অভিযুক্ত শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার জমিতে রোপণ করা ধানের চারা খেয়ে নষ্ট করে ফেলেছে সৈকত হাওলাদারের ছাগল। তাই ছাগলের কাছ থেকে ধানক্ষেত সুরক্ষিত রাখতে বেষ্টনী দিচ্ছিলাম। এমন সময় ফের ক্ষেতে এসে ধানের চারা খাওয়া শুরু করে ছাগলটি। তখন আমি তাড়িয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে হাতে থাকা ছুরিটি ছাগলটির দিকে ছুড়ে মারি। এতে ছাগলের শরীরে ছুরিটি লাগে।

বামনা উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের ড্রেসার মো. শেলিম খান বলেন, ছুরিবিদ্ধ হয়ে ছাগলটির পাকস্থলী চার ইঞ্চির মতো কেটে গেছে। ছাগলটির বাঁচার সম্ভাবনা কম। তবে আমরা সাধ্য অনুযায়ী ছাগলটিকে বাঁচানোর চেষ্টা চালাচ্ছি।

বামনা থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, এরই মধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।