বাবার বাড়ি যেতে না দেওয়ায় কমলগঞ্জের মাধবপুরে মণিপুরি গৃহবধূর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: 3:35 PM, May 25, 2020
ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার: বাবার বাড়ি মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের তিলকপুর গ্রামে বেড়াতে যেতে না দেওয়ায় অভিমানে বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে মাধবপুর ইউনিয়নের পারুয়াবিল গ্রামের মণিপুরি গৃহবধূ পিউ সিনহা (২২)।

রোববার রাতে এ ঘটনাটি ঘটলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সোমবার (২৫ মে) ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কমলগঞ্জের আলীনগর ইউনয়িনের তিলকপুর গ্রামের শীতেন্দ্র সিংহের মেয়ে পিউ সিনহার বিয়ে হয়েছিল মাধবপুর ইউনয়িনের পারুয়াবিল গ্রামের সুশীল সিংহের সাথে। গৃহবধূ পিউ সিনহা গত কিছু দিন ধরে স্বামীর কাছে বায়না ধরেন বাবার বাড়ি বেড়াতে যাবেন। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধকালে তাকে বাবার বাড়ি যেতে দেওয়া হয়নি। এ নিয়ে পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরে রোববার গৃহবধূ পিউ সিনহার মা তার (মেয়ের) বাড়ি বেড়াতে এসে এসময় বাবার বাড়ি যেতে না করেন। রোববার সন্ধ্যার পর পরিবার সদস্যদের অজান্তে গৃহবধূ পিউ সিনহা বিষ পানে আত্মহত্যা করে।

গৃহবধূ পিউ সিনহাকে মুমূর্ষূ অবস্থায় প্রথমে কমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। রোববার রাতে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরহ চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার পুলিশের একটি দল গৃহবধূ পিউ সিনহার লাশ উদ্ধার করে কমলগঞ্জ থানায় নিয়ে গেলে সোমবার ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

মাধবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন প্রাথমিকভাবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে বাবার বাড়ি যেতে না দেওয়ায় অভিমানে গৃহবধূটি আত্মহত্যা করেছে। ঘটনার সময় গৃহবধুর মা মেয়ের বাড়িতে ছিল। তিনি আরও বলেন যেহেতু পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করেছে সেহেতু বাদ বাকি কাজ পুলিশ তদন্তক্রমে হবে।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান মাধবপুরে মণিপুরি গৃহবধূর বিষ পানে আত্মহত্যার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে পুলিশি তদন্ত চলছে।