পর্দা উঠলো ‘দক্ষিণ এশিয়ার অলিম্পিক’ এসএ গেমসের

প্রকাশিত: 10:13 PM, December 1, 2019
ছবি সংগৃহীত

খেলা ডেস্ক: আজ (রোববার) আনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা উঠলো দক্ষিণ এশিয়ার অলিম্পিকখ্যাত এসএ গেমসের তেরতম আসরের। নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর দসরথ স্টেডিয়ামে গেমসের উদ্বোধন করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্দারি।

দসরথ স্টেডিয়ামের গ্যালারি ভর্তি দর্শকের সামনে নেপালের নানা সংস্কৃতি ফুটিয়ে তুলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে জাঁকজমক করার চেষ্টা করে আয়োজকরা। মার্চপাস্টে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা বহন করেন গত এসএ গেমসে জোড়া স্বর্ণজয়ী সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলা।

১০ দিনব্যাপী এই গেমস হওয়ার কথা ছিল ২৭ ডিসিপ্লিনে। শেষ মুহূর্তে আয়োজকরা বাদ দিয়েছে একটি ডিসিপ্লিন। ২৬ ডিসিপ্লিনের মধ্যে বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে ২৫ টিতে। এবার গেমসে ৩১৭ স্বর্ণের লড়াই হবে। বাংলাদেশ থেকে অংশ নিচ্ছে ২৬৩ জন ছেলে ও ১৯৯ জন মেয়ে অ্যাথলেট।

এর বাইরে নেপালের ৬৪৮ জন, ভারতের ৪৬১ জন, পাকিস্তানের ৪১৩ জন, মালদ্বীপের ৩৩২ জন, ভুটানের ১৪২ জন ও শ্রীলঙ্কার ৬২২ জন অ্যাথলেট অংশ নেবে গেমসে। ৩০৮০ জন অ্যাথলেট, স্বপ্নবিভোর ৩০৮০ জোড়া চোখ। যে চোখগুলোতে স্বপ্ন আঁকছে ৩১৭টি সোনার পদক।

এ নিয়ে তৃতীয়বার নেপালে বসছে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। ১৯৮৪ সালে এই নেপাল থেকেই যাত্রা শুরু করেছিল এসএ গেমস। মাঝে ১৯৯৯ সালে হিমালয়ের দেশটিতে হয়েছিল গেমস। তখন খেলা হয়েছিল শুধু কাঠমান্ডুতে। এবার পোখারায়ও জানকপুরেও হচ্ছে খেলা।