সিলেটে হামলা করে বিআরটিসি বাস বন্ধ করলেন পরিবহন শ্রমিকরা

প্রকাশিত: 4:08 PM, December 27, 2020
সংগৃহীত

ধলাই ডেস্ক: সিলেটে অফিসে হামলা করে বিআরটিসির বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন সাধারণ পরিবহন শ্রমিকরা। এ সময় সরকারি এই বাস সার্ভিসের ম্যানেজারকে মারধর ও গাড়ি ভাঙচুর করে নৈরাজ্যের সৃষ্টি করেন শ্রমিকরা।

জানা গেছে, রোববার (২৭ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশিদ চত্বরে শ্রমিকরা গিয়ে বিআরটিসি কাউন্টারে তালা লাগিয়ে দেন এবং ম্যানেজারের সরকারি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

বিআরটিসি কর্তৃপক্ষের অভিযোগ তাদের কাউন্টার থেকে নগদ প্রায় সাড়ে ১২ হাজার টাকা এবং একটি ল্যাপটপ ছিনিয়ে নেন পরিবহন শ্রমিকরা।

হুমায়ুন রশীদ চত্বরে বিআরটিসি কাউন্টারের ম্যানেজার অভিযোগ করেন, সকাল ৯টায় শেরপুর মৌলভীবাজারগামী একটি বাস শেরপুরে অবরোধ করেন পরিবহন শ্রমিকরা। এরপর সকাল সাড়ে ৯টায় হুমায়ুন রশীদ চত্বরে বিআরটিসি কাউন্টারে ১০-১৫ জন পরিবহন শ্রমিক গিয়ে অতর্কিত হামলা চালান।

এ সময় তারা কাউন্টারে লুটপাট ও ডিপো ইনচার্জ জুলফিকার আলীকে মারধর করেন। তার সরকারি গাড়ির কাচও ভেঙে ফেলেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ সময় পরিবহন শ্রমিক নেতারা দাবি করেন, তাদের সাথে আলোচনা না করে ও তাদের অনুমতি না নিয়ে গাড়ি চালানোয় তারা ক্ষুব্ধ।

এ ঘটনার পর থেকে আর কোনো বাস কাউন্টার ছেড়ে যায়নি। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশি প্রহরায় বাস ছাড়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

বিআরটিসি সিলেটের ম্যানেজার জুলফিকার আলী বলেন, আমরা আইনি পদক্ষেপ নেব। সেজন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ২২ ডিসেম্বর সকালে সচিবালয়ে সিলেট-মৌলভীবাজার-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস সার্ভিস উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। উদ্বোধনের দিন থেকেই এই দুই রুটে বিআরটিসির বাস চলাচলে আপত্তি জানিয়ে আসছেন পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। যদিও যাত্রীরা বিআরটিসির বাসকে স্বাগত জানিয়েছেন।